» টোয়াব এর আয়োজনে বাৎসরিক আন্তর্জাতিক পর্যটন মেলা আগামী ০৩-০৫ ফেব্রুয়ারী

প্রকাশিত: ০৩. জানুয়ারি. ২০২২ | সোমবার

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

 

জাতির সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম।। 
বাংলাদেশের বৃহত্তম পর্যটন মেলা ১০ম বাংলাদেশ ট্রাভেল এন্ড ট্যুরিজম ফেয়ার (বিটিটিএফ) ২০২২ আগামী ০৩-০৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২২ তারিখে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) অনুষ্ঠিত হবে। বাংলাদেশ ট্রাভেল এন্ড ট্যুরিজম ফেয়ার (বিটিটিএফ) ২০২২এর আয়োজন করবে দেশের পর্যটন শিল্পের শীর্ষস্থানীয় বাণিজ্য সংগঠন ট্যুর অপারেটরস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (টোয়াব)। তিন দিনের বাৎসরিক এই আন্তর্জাতিক পর্যটন মেলা টোয়াব কর্তৃক ২০০৭ সাল থেকে আয়োজিত হয়ে আসছে । পর্যটন সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টি এবং এর টেকসই উন্নয়ন এই মেলার প্রধান উদ্দেশ্য। এই মেলার সার্বিক সহযোগিতায় রয়েছে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন, বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড, এফ.বি.সি.সি.আই এবং বাংলাদেশ ট্যুরিস্ট পুলিশ।
তিন দিনের এই মেলায় জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক পর্যটন সংস্থা, দেশী ও বিদেশী ট্যুর অপারেটরস, ট্রাভেল এজেন্টস, ট্যুরিজম অথরিটি, এয়ারলাইন্স, হোটেল, রিসোর্টস, এমিউজমেন্ট পার্ক, ট্রান্সপোর্ট কোম্পানীসহ আরো অনেকে অংশগ্রহন করবে। করোনার কারনে এ বছর বিদেশীদের অংশগ্রহন সিমীত পর্যায়ে থাকবে। তবুও নেপাল এসোসিয়েশন অব ট্যুর এন্ড ট্রাভেল এজেন্টস (নাটা), ইস্টার্ন হিমালয়া ট্রা্ভেল এন্ড ট্যুর অপারেটরস এসোসিয়েশন (ইটোয়া), এসোসিয়েশন অব বুদ্ধিস্ট ট্যুর অপারেটরস (এবিটিও) এবং ভারত, নেপাল, মালদ্বীপ, শ্রীলংকা, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও তুরস্কের ট্যুর অপারেটর ও ট্রাভেল এজেন্টস তাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করেছে। এছাড়া বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড ও বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন তাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করেছে। আমরা আশা করছি আরও কিছু দেশের ট্যুর অপারেটর ও ট্রাভেল এজেন্টসরা অংশগ্রহণ করবে।
বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রনালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জনাব মোঃ মাহবুব আলী, এম.পি উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে বিটিটিএফ ২০২২ উদ্ধোধন করবেন। বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রনালয়ের সম্মানিত সচিব জনাব মোঃ মোকাম্মেল হোসেন উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানের গেষ্ট অফ অনার হিসেবে উপস্থিত থাকবেন। এছাড়াও বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের চেয়ারম্যান জনাব এ.এইচ.এম. গোলাম কিবরিয়া, বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের সিইও জনাব জাবেদ আহমেদ, বাংলাদেশ ট্যুরিস্ট পুলিশের ডিআইজি জনাব মোর্শেদুল আনোয়ার খান এবং বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত ও হাই কমিশনারগণ মেলার উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন। মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে টোয়াবের পরিচালনা পর্ষদ, টোয়াবের সদস্য ও কর্মকর্তাগণ, অন্যান্য পর্যটন সংগঠনের সভাপতিমন্ডলী, পর্যটন স্টেকহোল্ডার, বিশিষ্ট অতিথিবৃন্দ, মেলায় অংশগ্রহণকারীগণ এবং প্রিন্টের ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরাও উপস্থিত থাকবেন।
মেলার উদ্ধোধনী তারিখ ঘোষণা এবং সার্বিক প্রস্তুতি সম্পর্কে অবহিত করার জন্য আজ সোমবার দুপুর ১১টার দিকে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী মিলনায়তনে ট্যুর অপারেটরস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (টোয়াব) এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে।মেলার প্রেক্ষাপট ও সার্বিক প্রস্তুতি সম্পর্কে বর্ণনা করেন টোয়াবের পরিচালক (বানিজ্য ও মেলা) জনাব মোঃ আনোয়ার হোসেন। তিনি বলেন, এবারের মেলা আগের বছরের তুলনায় অনেক আকর্ষণীয় ও জাঁকজমকপূর্ণ করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এই বছর মূল মেলার সাথে সাইড লাইন ইভেন্ট হিসাবে থাকবে বি টু বি সেশন, সেমিনার, রাউন্ড টেবিল ডিসকাসন, কান্ট্রি প্রেজেন্টেশন, সাস্কৃতিক অনুষ্ঠান, রেফেল ড্র ইত্যাদি। মেলায় ৩ টি হলে ১২ টি পেভিলিয়ন, ১৬ টি সেমি-পেভিলিয়নসহ সর্বমোট ১৩০ টি স্টল থাকবে। এবারের মেলায় প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সম্মানিত সাংবাদিকবৃন্দের জন্য আলাদা লাউঞ্জ এর ব্যবস্থা থাকবে।
টোয়াবের সভাপতি ও বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের গভর্ণিং বডি মেম্বার জনাব মোঃ রাফেউজ্জামান বলেন, টোয়াব বাংলাদেশের পর্যটন শিল্পের শীর্ষস্থানীয় বাণিজ্য সংগঠন এবং বিটিটিএফ বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় এবং জনপ্রিয় পর্যটন মেলা। গত দুই বছরে করোনা মহামারীর কারনে আমরা বিটিটিএফ আয়োজন করতে পারি নাই। আমরা আশা করছি যে করোনা মহামারীর কারনে দীর্ঘ বিরতির পর অনুষ্ঠিতব্য পর্যটন মেলায় ব্যবসায়ী, দেশী-বিদেশী পর্যটক এবং পর্যটন শিল্প সংশ্লিষ্ট সকলের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ ও উদ্দীপনা সৃষ্টি করবে। করোনা মহামারীর পর এই মেলার মাধ্যমে বাংলাদেশের পর্যটন শিল্প আবার ঘুরে দাঁড়াবে এবং বাংলাদেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।
সংবাদ সম্মেলন শেষে টোয়াবের সভাপতি সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন।
বিটিটিএফ ২০২২ মেলা প্রতিদিন সকাল ১০ টা হতে রাত ৮ টা পর্যন্ত দর্শনাথীদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। মেলায় প্রবেশ মূল্য ৩০ টাকা তবে ছাত্র-ছাত্রীরা আইডি কার্ড প্রদর্শন করে মেলায় ফ্রি প্রবেশ করতে পারবে। মেলায় প্রবেশ টিকেটের বিপরীতে রয়েছে র‌্যাফেল ড্র।

Facebook Pagelike Widget