» স্যালুট হে যুবক!!

প্রকাশিত: ৩০. এপ্রিল. ২০২০ | বৃহস্পতিবার

 

সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলায় স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ভাব-বাংলাদেশের উদ্যোগে ১৫টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে স্বল্প আয়ের কর্মহীন অভিভাবক ও ননএমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের নগদ আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করা হচ্ছে। উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের ১৫টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে গিয়ে সহযোগিতা প্রদান ও করোনা ভাইরাস সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টিতে সংস্থাটির পক্ষ থেকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে ৯ জন অ্যাম্বেসেডর (ভলান্টিয়ার) কে। গত ২৪ এপ্রিল থেকে তারা আর্থিক সহযোগিতা প্রদান শুরু করেছে মোট ৩২১ জনকে সহযোগিতা করছে। আজ শেষ দিন। ত্রিপানি বিদ্যাপীঠে তারা কাজ শেষ করে তাদের কাজ সুন্দরবন মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে। ত্রিপানি স্কুলে কাজ আগে শেষ হয়ে যাওয়ায় তারা সুন্দরবন মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে চলে যায়। কিন্তু এই স্কুলে বিতরণের সময় আরও পরে স্কুলের গেইটে তালা দেয়া। পাশের ধানক্ষেতে কৃষক কষ্ট করে দুপুরের রোদে ধান কাটছে। এদৃশ্য দেখে যেহেতু তাদের কাজ আরও পরে তারা ৩ জন কৃষকের অনুমতি নিয়ে তাকে একটু বিশ্রাম দিয়ে ধান কাটা শুরু করে দিলেন। স্যালুট জানায় হে যুবক তোমাদের। ভাব বাংলাদেশের তিন অ্যাম্বেসেডর আব্দুল আলিম, আবু ইসহাক হোসাইন, আলী রেজা রিপন রোজা রেখে সত্যিকারের মানবসেবা করলেন। তবে একটি কথা না বললেই নয়; সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার যুবকেরা অত্যন্ত মানবিক। তাদের স্বেচ্ছাসেবা সত্যিই প্রশংসার দাবিদার। একটি উপজেলার ৪০০/৫০০ যুবক নিবেদিতভাবে স্বেচ্ছায় মানুষের সেবা করে যাচ্ছেন।

লেখকঃ এম. এ. আলিম খান, প্রাবন্ধিক ও উন্নয়নকর্মী