» স্ত্রীর চেয়ে কম সৌন্দর্যের স্বামীরা সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে বেশি যত্নবান

প্রকাশিত: ১৮. এপ্রিল. ২০২২ | সোমবার

জাতির সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম।।
প্রায় সময়ই দেখা যায়, স্বামীর চেয়ে স্ত্রী বেশি আকর্ষণীয় বা সাধারণভাবে লোকে বলে বেশি সুন্দরী। যদিও সুন্দর বা সুন্দরীর কোনো মাপকাঠি নেই। যেকোনো চেহারাতেই মানুষ সুন্দর।

বিয়ের ক্ষেত্রে সব পুরুষই চায় সুন্দরী বউ পেতে। নারীদের ক্ষেত্রেও এর ব্যতিক্রম হয় না।

সম্প্রতি এক এক গবেষণায় দেখা গেছে, সফল সম্পর্কে বেশিরভাগ সময় পুরুষের চেয়ে নারী সঙ্গী বেশি সুন্দরী হয়ে থাকেন। অন্যভাবে বললে, নারীরা কম আকর্ষণীয় বা কম সুন্দর পুরুষের সঙ্গে বেশি সুখী হন। ফ্লোরিডা স্টেট ইউনিভার্সিটির এক গবেষণায় এমন তথ্য উঠে এসেছে।

১১৩ জন নববিবাহিত দম্পতির ওপর পরিচালনা করা এই জরিপে স্বামী-স্ত্রীকে তাদের চেহারার ওপর ভিত্তি করে নম্বর দেওয়া হয়। দেখা যায়, স্ত্রীর চেয়ে সৌন্দর্যে পিছিয়ে থাকা স্বামীরা সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার ক্ষেত্রে বেশি যত্নবান। উপহার দেওয়া, ঘরের কাজ করা, নিজেকে নতুন করে উপস্থাপন করা, ভালোবাসার নিত্যনতুন ধরণ বের করায় তাদের প্রচেষ্টা থাকে একটু বেশিই।

গবেষণায় বলা হয়, কম আকর্ষণীয় দেখতে স্বামীরা সম্পর্কে বেশি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়। সেইসঙ্গে তারা স্ত্রীর সৌন্দর্যের মর্ম বুঝতে পেরে স্ত্রীকে খুশি করতেও বেশি ব্যস্ত থাকেন।

গবেষণায় আরো দেখা যায়, দম্পতির মধ্যে পুরুষ সঙ্গী বেশি আকর্ষণীয় হলে হীনমন্যতায় ভোগেন নারী সঙ্গী, যা তাদের সম্পর্কে নানাভাবে খারাপ প্রভাব ফেলে।

ফ্লোরিডা স্টেট ইউনিভার্সিটির গবেষক তানিয়া রেনোল্ডস বলেন, ‘গবেষণার ফলাফলে দেখা যায়, আকর্ষণীয় চেহারার স্বামীর জন্য সম্পর্কে খারাপ প্রভাব পড়ে, বিশেষভাবে যদি স্ত্রীরা কম আকর্ষণীয় হয়।