» শ্রীমঙ্গলে সুবিধাবঞ্চিত হিজরাদের খাদ্যসামগ্রী দিলেন র‍্যার-৯

প্রকাশিত: ২৩. এপ্রিল. ২০২০ | বৃহস্পতিবার

আব্দুস শুকুরঃ শ্রীমঙ্গলে সুবিধাবঞ্চিত তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ হিজড়াদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করলেন র‍্যার-৯ শ্রীমঙ্গল ক্যাম্প। বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসের প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশও। তাই দেশজুড়ে চলছে লকডাউন যানবাহন চলাচল বন্ধসহ দোকানপাট শপিংমল বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান ও কলকারখানা বন্ধ রাখা হয়েছে। দিশেহারা হয়ে পড়েছে কর্মজীবী দিনমজুর সহ নানা পেশার মানুষজন। দেশের এই সংকটময় পরিস্থিতিতে সরকারের পাশাপাশি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন সহ সমাজের বিত্তবানরা ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে এগিয়ে এসেছে অসহায় মানুষদের পাশে।

 

উল্লেখ্য সরকার এবং বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের পাশাপাশিখাবার নেই এমন মানুষের খবর পেলে তাদের ঘরে খাবার নিয়ে পৌঁছে দিচ্ছেন শ্রীমঙ্গল র‍্যার-৯ ক্যাম্পের সদস্যরা। র‍্যার-৯ শ্রীমঙ্গল ক্যাম্পের এসব কর্মকাণ্ডের নেতৃত্ব দিচ্ছেন ক্যাম্পের অধিনায়ক এএসপি মো. আনোয়ার হোসেন। করোনা ভাইরাসের প্রকোপ থেকে মানুষকে বাঁচতে দিনরাত কাজ করতে দেখা যায় এএসপি আনোয়ার হোসেন’কে। উনার এমন কর্মকান্ড দেশজুড়ে ব্যাপক প্রশংসনীয় যা ইতিমধ্যে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রচার হয়েছে। র‍্যার-৯ শ্রীমঙ্গল ক্যাম্পের এরকম কর্মকান্ডের অংশ হিসেবে ২৩ এপ্রিল বুধবার রাতে একজন হিজড়া সদস্য তাদের দুর্দশার কথা র‍্যার-৯ শ্রীমঙ্গল ক্যাম্পের অধিনায়ক মো. আনোয়ার হোসেনকে মুঠোফোনে জানালে তিনি কিছুক্ষণের মধ্যেই খাদ্য সামগ্রী নিয়ে শ্রীমঙ্গল রেলস্টেশনে পৌঁছান। এসময় তিনি সবাইকে ডেকে এনে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে দিকনির্দেশনামূলক পরামর্শ দেন। পাশাপাশি সকলের হাতে খাদ্য সামগ্রীর প্যাকেট তুলে দেন তিনি। এবিষয়ে র‍্যার কমান্ডার এএসপি মো. আনোয়ার হোসেন জানান সরকারি কর্মকর্তা হিসেবে নয় একজন মানুষ হিসেবে সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে আমাদের বেতনের টাকা দিয়ে সামর্থ্য অনুযায়ী কিছু করার চেষ্টা করছি শুধুমাত্র। যখনই খবর পাই কোথাও কোন মানুষ অনাহারে রয়েছে আমরা খাদ্য সামগ্রী নিয়ে ওই ব্যক্তির ঘরে পৌঁছে দেই। তিনি আরো বলেন দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে সকলের উচিত যার যার অবস্থান থেকে সামর্থ্য অনুযায়ী গরীব অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানো।