» শার্শার উদ্ভাবক মিজানের বিতরণ করা তালবীজে মাটি ফুড়ে বেরিয়েছে গাছ এসেছে আমগাছে মুকূল

প্রকাশিত: ০৮. ফেব্রুয়ারি. ২০২০ | শনিবার

 

খোরশেদ আলম, জাতির সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম : যশোরের শার্শার সেই দেশসেরা উদ্ভাবক মিজানের বিতরণ করা, তালবীজে মাটি ফুড়ে বেরিয়ে এসেছে গাছ এবং তার বিতরণ করা সেইসব আমগাছে এসেছে আমের মুকূল ( আঞ্চলিক ভাষা আমের বোল )।

বেশকিছু দিন আগে উদ্ভাবক মিজান যশোরের তার নিজ এলাকার শার্শা উপজেলা সদরসহ নাভারণ, বেনাপোল, বাহাদুরপুর, ঝিকরগাছা উপজেলা এবং জেলাসদর যশোর সহ দেশের বিভিন্ন অন্যান্য উপজেলা, জেলা সদর, বিভাগীয় সদর এবং গুরুত্বপূর্ণ স্থানে তালগাছ রোপণ, বীজ বিতরণ ও পরিবেশ রক্ষায় বিনামূল্যে গাছ বিতরণ সহ ডেঙ্গু সচেতনতামূলক বিষয়ে আলোচনা সহ লিপলেট বিতরণ করেছেন।

সংক্ষিপ্ত কিছু বিবরণ ঃ যশোরের শার্শা উপজেলার বাহাদুরপুরের, রহিমপুর আলিম মাদ্রাসা সহ দেশের বিভিন্ন অন্যান্য মাদ্রাসা, স্কুল – কলেজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ও দেশের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে, ‘লাগাই তাল গাছ, বাঁচাই দেশ বজ্রপাত মুক্ত বাংলাদেশ’ – আগে পরিবেশ পরে গাছ করবো সবাই সুন্দর পরিবেশে বসবাস” এই দুই স্লোগানকে সামনে রেখে, দেশসেরা উদ্ভাবক মিজানুর রহমানের ভ্রাম্যমাণ মিজান নার্সারি’র উদ্যোগে। বিনামূল্যে তার নিজ এলাকা শার্শা উপজেলার বিভিন্ন  স্থান এবং দেশের বিভিন্ন এলাকার সামাজিক, বনায়ন সমিতির যৌথ উদ্যোগে আলোচনাসভা সহ বজ্রপাত প্রতিরোধে বিনামূল্যে তাল বীজ ও ফলদ চারা রোপণ এলাকা’র ছাত্রছাত্রীদের মাঝে বিতরণ অভিযান সহ ডেঙ্গু সচেতনতা’র লিপলেট বিতরণের কর্মসূচি পালন করেছেন।

উক্ত বিতরণ অনুষ্ঠানে,  বিভিন্ন এলাকার সমাজসেবক গুণীজন সহ বিশিষ্টজণেরা ছাড়াও সরকারী প্রশাসনিক নিম্ন-উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তারা। বজ্রপাত প্রতিরোধে বিনামূল্যে তালবীজ ও ফলদ চারা রোপণ অভিযান ও ডেঙ্গু সচেতনতা’র লিপলেট বিতরণ কর্মসূচিকে স্বাগত জানিয়ে। অনুষ্ঠান সহযোগীতা’র সফরসঙ্গী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সহযোগী সফরসঙ্গীগণেরা দেশের ভারসাম্য পরিবেশ রক্ষার্থে বেশি করে গাছ লাগানোর জন্য আহ্বান জানান এবং শিক্ষার্থীদের মধ্যে বৃক্ষরোপণে সচেতনতা বৃদ্ধি, মানবিক মূল্যবোধ ও জাতি গঠনে সুপরামর্শ এবং মাদকমুক্ত সমাজ গঠনে এগিয়ে আসার গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ দেন।

তার সেই বিতরণ করা তালবীজে মাটি ফুড়ে বেরিয়ে এসেছে গাছ এবং বিতরণ করা আমগাছে এসেছে আমের মুকূল। বেরিয়ে আসা তালগাছ এবং আমগাছের আমের মুকূল দেখে খুশিতে আত্মহারা প্রকাশ পেয়েছে তার চোখেমুখে।

উদ্ভাবক মিজানের দাবীঃ- বাংলাদেশ সরকারের পরিবেশ অধিদপ্তর মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট তার দাবী: বাংলাদেশের পরিবেশ বিপর্যয় ঠেকাতে এবং পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার্থে ক্ষতিকর স্থাপনা এবং ইটভাটাগুলো নিয়ন্ত্রণের পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য প্রতিটি উপজেলায় একটি করে পরিবেশ শাখা দপ্তর অফিস দেওয়ার দাবী জানিয়েছেনে।

এদিকে ইতিমধ্যে উদ্ভাবক মিজান প্রতিটি হাট-বাজার, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং গুরুত্বপূর্ণ স্থানে বিনামূল্যে ডাস্টবিন বিতরণ করার উদ্যোগ নিয়েছেন। তার এই উদ্যোগে দেশবাসীর সহযোগীতা কামনা সহ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট সহযোগীতা প্রত্যাশা’র  আবেদন জানিয়েছেন।