» মৃত্যু অবদি সাধারণ জনগনের সাথে থেকে কল্যাণকর কাজে নিজেকে ব্যাস্ত রাখতে চাই:মোঃ শাহ্ উল্লাহ

প্রকাশিত: ১৩. জানুয়ারি. ২০২০ | সোমবার

জাতির সংবাদ ২৪ ডটকম।।     ছোট বেলা থেকেই সাধারণ মানুষের সাথে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে বন্ধু সুলভ ভাবে মিশেছি। অসহায় মানুষের সুখ দুঃখ শেয়ার করেছি প্রতিনিয়ত, আর মৃত্যু অবদি সাধারণ জনগনের সাথে থেকে কল্যাণকর কাজে নিজেকে ব্যাস্ত রাখতে চাই।

কথা গুলো পূর্ব জুরাইনের সাদামনের মানুষ খ্যাত মোঃ শাহ্ উল্লাহর। ৫২নং ওয়ার্ডের কাউন্সির প্রার্থী ও পূর্ব জুরাইন সমাজ কল্যাণ সমিতির সাবেক এই সভাপতি এলাকার সাধারণ মানুষদের অত্যান্ত প্রিয়। এই মানুষটি যেন মানবতার এক সাদাকালো দেয়াল

আসন্ন ঢাকা (দঃ) সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে কাউন্সিলর প্রার্থী হিসেবে নিজের অব্যাক্ত কথা গুলো শনিবার মুরাদপুর মাদ্রাসা রোডস্থ নিজ বাড়ির নিচে নিজস্ব অফিসে বসে এই প্রতিবেদকের প্রশ্নের উত্তরে বলেন প্রিয় এই সমাজসেবক। ছোট বেলা থেকে এলাকায় সামাজিক কর্মকাণ্ড সহ উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে নিজেকে সদা নিয়োজিত রেখেছেন এই মানুষটি।

ছোটবেলা থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে বেড়ে উঠা মানুষটি মানবিক ও কল্যাণকর কাজ ছাড়াও কাজ করেছেন শিক্ষামূলক নানান খাতে।মুরাদপুর উচ্চ বিদ্যালয় সহ বেশ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নির্বাচিত সভাপতি ছাড়াও বেশ কয়েকটি এতিমখানা ও মাদ্রাসারপ্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে নিজেকে বিলিয়ে দিয়েছেন সমানতালে।

তাইতো প্রশ্নের শুরুতে বললেন, আমি বিশেষ করে অবহেলিত শিশুদেরকে নিয়ে সর্বদাই ভাবি,এতিম অসহায় মানুষদের আমি কাছ থেকে দেখার চেষ্টা করেছি,তাই হয়তো পূর্ব জুরাইন সমাজকল্যাণ সমিতির সাথে জিবনের বড় অংশজুড়েই আছি। কণ্যাদায়গ্রস্ত গরীব অসহায় পিতার বিয়ে নামক মরন সংকট ও গরীব অসুস্থ মানুষদের যতটুকু পেরেছি আর্থিক সহায়তায় নিজের সহযোগিতা সহ সমাজের বিত্তবানদের কাছেও দারস্ত হয়েছি।

রাজনীতিতে কিভাবে আসা জানতে চাইলে শাহ্ উল্লাহ বলেন,জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে শুধুমাত্র মানব সেবার উদ্দেশ্য আমার রাজনৈতিক অঙ্গনে আসা।কারন মানব সেবাই পরম ধর্ম।

তিনি আরো বলেন,আমি কাউন্সিলর হলে সমাজের অবহেলিত অসহায় মানুষদের সাথে নিয়েই কাজ করবো।কারন সাধারণের উন্নয়ন মানে সামগ্রিক ভাবেই সফল উন্নয়ন।