এই মাত্র পাওয়া:

» মুছলেখা দিয়ে ছাড়া পেলেন অভিনেতা প্রযোজক ও পরিচালক চিকন আলী

প্রকাশিত: ২৩. নভেম্বর. ২০২১ | মঙ্গলবার

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

জাতির সংবাদ টোয়েন্টিফোর ডটকম।। 

অশ্লীল ও কুরুচিপূর্ণ কমেডি নাটক নির্মাণের অভিযোগে অভিনেতা চিকন আলীসহ তিনজনকে আটক করা হয়। পরে ডিবি সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগের অর্গানাইজড ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন টিম দীর্ঘ জিজ্ঞাসাবাদের পর তাদেরকে মুচলেকায় নিয়ে চলচিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগরের জিম্মায় ছেড়ে দেওয়া হয়।

ডিবি জানায়, অশ্লীল ও কুরুচিপূর্ণ কনটেন্টের অভিনেতা শামিনুর রহমান ওরফে চিকন আলী (৩৭), পরিচালক উত্তম কুমার ধর (৩৮), ও প্রযোজক মো. শামসুল হককে (৫৫) জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৮ নভেম্বর) রাতে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মো. সাইফুল ইসলাম এসব তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ডিবি-সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগের অর্গানাইজড ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন টিম বিভিন্ন মানুষের কাছ থেকে প্রাপ্ত অভিযোগের ভিত্তিতে ও সাইবার প্রেট্রোলিংয়ের মাধ্যমে দেখতে পায়, কয়েকটি চক্র অশ্লীল ও কুরুচিপূর্ণ কনটেন্ট তৈরি করে বিভিন্ন ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করেছে। এসব অশ্লীল ও কুরুচিপূর্ণ কনটেন্টের জন্য তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তারা তাদের কৃতকর্মের ভুল স্বীকার করে ক্ষমা প্রার্থনা করে।

চলচিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর ডিবি কার্যালয়ে হাজির হয়ে চলচিত্র শিল্পী সমিতির আর কোনো সদস্য অশ্লীল ও কুরুচিপূর্ণ কনটেন্ট তৈরি করবে না বলে ডিসি-ডিবি সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগের কাছে প্রতিশ্রুতি প্রদান করেন। এছাড়াও আপলোডকৃত কনটেন্টগুলো ডিলিট করার অঙ্গীকার দিয়ে মুচলেকা গ্রহণ করে তাদের অভিভাবকের জিম্মায় ছেড়ে দেওয়া হয়।

ডিসি মো. সাইফুল ইসলাম আরও বলেন, ডিবি-সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগ নিয়মিত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম নজরদারি করছে। ভবিষ্যতে কোনো অশ্লীল ও কুরুচিপূর্ণ কনটেন্ট সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কেউ আপলোড করলে তাকে আইনের আওতায় আনা হবে।

তিনি বলেন, যারা এ ধরনের অশ্লীল ও কুরুচিপূর্ণ কনটেন্ট তৈরি করে আপলোড করেছে তাদেরকে অতি দ্রুত কনটেন্টগুলো সরিয়ে ফেলতে হবে। অশ্লীল, কুরুচিপূর্ণ ও চলচিত্রের ভাবমূর্তি ক্ষুন্নকারী কনটেন্ট তৈরি ও আপলোড থেকে সবাইকে বিরত থাকতে হবে।

যারা পুনরায় অশ্লীল, কুরুচিপূর্ণ ও চলচিত্রের ভাবমূর্তি ক্ষুন্নকারী কনটেন্ট তৈরি এবং আপলোড করবে তাদেরকে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনা হবে। যারা অশ্লীল, কুরুচিপূর্ণ ও চলচিত্রের ভাবমূর্তি ক্ষুন্নকারী কনটেন্ট তৈরি করে তাদেরকে সামাজিকভাবে বয়কট করতে হবে বলেও জানান ডিবির সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইমের এই কর্মকর্তা।

Facebook Pagelike Widget