» মাধবপুরে হয়রানিমূলক মামলার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশিত: ২৯. ফেব্রুয়ারি. ২০২০ | শনিবার

 

এস এম রাকিব, মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি:

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার রাজাপুর গ্রামের বাহাদুরের মৃত্যুকে স্বাভাবিক মৃত্যু বলে দাবি করছেন বিবাদীগণের স্বজনরা। তাদের অভিযাগ স্থানীয় কোন্দলের কারণে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে বাহাদুরের স্বাভাবিক মৃত্যু ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্য রাজাপুর গ্রামের জিলু মিয়া সহ ৮ জনের বিরুদ্ধে হয়রানিমূলক মামলা করা হয়েছে।

শনিবার (২৯ ফেব্রুয়ারী) সকালে ১নং বিবাদীর স্ত্রী ফরিদা খাতুন মাধবপুর প্রেসক্লাবে স্বজনদের নিয়ে উপস্থিত হয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ পাঠ করে শোনান।

তাদের দাবি রাজাপুর গ্রামের বাহাদুর মিয়া বুক ব্যাথা নিয়ে গত ১২ ফেব্রুয়ারি স্থানীয় মনতলা নুসরা ক্লিনিকে চিকিৎসা দিতে নেওয়া হয়। পরে ওই ক্লিনিকের পরামর্শ মতে তাকে মাধবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লক্সে নেয়া হয়।

ওইদিন রাতে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় বাহাদুরের ভাই জামাল জিলু মিয়াকে প্রধান আসামী করে তার পরিবার ৮ জনের বিরদ্ধে গত ১৭ ফেব্রুয়ারি হবিগঞ্জ অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত একটি দরখাস্ত করেন। বিজ্ঞ বিচারক এই সংক্রান্ত মাধবপুর থানায় মামলা, অপমত্যু মামলা বা জিডি করা হয়ছে কি না এ মর্মে ৩ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করার জন্য মাধবপুর থানার ওসিকে নির্দেশ দেন।

আদালতের নির্দেশ মাধবপুর থানা পুলিশ অত্র বিষয়ে কোন মামলা কিংবা অপমত্যু মামলা হয়নি বল প্রতিবেদন দেন। তবে একটি জিডি মূলে বাহাদুরের ময়না তদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। বিবাদীর স্বজনদের দাবি বাদী পক্ষের সঙ্গে বিবাদীদের বিরোধ ছিল। এর জের ধরে একটি স্বাভাবিক মৃত্যুকে কেন্দ্র করে বিবাদীদের ফাঁসাতে হয়রানিমূলক মামলা হয়ছে। তাদের দাবি আইনশৃংখলা বাহিনী নিরপক্ষ তদন্ত করলে মামলাটি মিথ্যা প্রমাণিত হবে।

মাধবপুর থানার ওসি ইকবাল হোসেন বলেন, আদালতের নির্দেশে এ মামলার প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।