এই মাত্র পাওয়া:

» বাঁশখালীতে প্রতারনার অভিযোগে নারীসহ তিনজন এনজিও কর্মী আটক

প্রকাশিত: ০২. মার্চ. ২০২১ | মঙ্গলবার

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

 

ডা. জসিম তালুকদার,চট্টগ্রাম দঃ জেলা প্রতিনিধি।।

বাঁশখালীতে ভুয়া এনজিও করে হাতিয়ে নিলো লক্ষ লক্ষ টাকা, আটক ৩ জন মামলার আসামী ২১।
বাঁশখালীতে ভুয়া এনজিও করে হাতিয়ে নিলো লক্ষ লক্ষ টাকা, আটক ৩ জন মামলার আসামী।

মাত্র ১০ হাজার টাকা সঞ্চায় জমা কলেই ৭ দিনের ১ থেকে ৫ বছর মেয়াদী ১ লক্ষ টাকা ঋণ প্রদান এমন প্রলোভন দেখিয়ে বেনামি এনজিও নাম ব্যবহার করে গ্রামের সহজ-সরল নারী পুরুষদের কাছ থেকে হাতিয়ে নিয়েছেন লক্ষ লক্ষ টাকা। সহযোগী হিসাবে নিয়ে স্থানীয় কয়েক জন নারী ও পুরুষ মাঠকর্মী।

পল্লী সামাজিক উন্নয়ন সংস্থা নামে ভুয়া এনজিও নামে প্রতারনাকালে হাতে-নাতে  তিন জনকে আটক করে চট্টগ্রামের বাঁশখালী ইউএনও অফিসে সোপর্দ করেন কালীপুর ইউপি চেয়ারম্যান এডভোকেট আ.ন.ম শাহাদত আলম।

সোমবার (১ মার্চ) সকালে  বাঁশখালী উপজেলা কালীপুর ইউনিয়নের পালেগ্রাম এলাকা থেকে আটক করেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান এডভোকেট আ.ন.ম শাহাদত আলম।

আটককৃতের ইউএনও অফিসে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগের পর অভিযোগ নিয়ে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) অফিসে ভোক্তভোগি নারী-পুরুষরা হাজির হন নিজ নিজ পাস বই সহকারে অভিযোগ নিয়ে। এতে হাতে নাতে ৩ জনকে আটক করলেও পালিয়ে বেড়াচ্ছেন স্থানীয় সহযোগী আরো ১০/১২ জন প্রতারক।

এ ব্যাপারে ভোক্তভোগি কালীপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের পূর্ব পালেগ্রাম এলাকার মৃত মনির আহমদের পুত্র মনির হাছান (৩৬) বাদী হয়ে ৯ জনের নাম উল্লেখ্য করে ১০/১২ জনকে অজ্ঞাত আসামী করে বাঁশখালী থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার আসামীরা হলেন,  ফানা উল্লাহ বাহার,   নাসিমা খান,  মোঃ বাহার উদ্দীন আবেদ,   ফখরুদ্দিন ,   রিনা আক্তার, শফিকুর রহমান,  রেজা,  আনিসুল হক, মোঃ সেলিম।

পালেগ্রাম এলাকার এক গ্রাহক জানান, পল্লী সামাজিক উন্নয়ন সংস্থা নামক একটি এনজিও কিছু দিন যাবৎ এলাকার কালীপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকার সহজ-সরল মানুষের ঘরে কেন্দ্র করিয়ে নারীদের জমায়েত করে তাঁরা বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা দেখিয়ে এবং মাত্র ১০ হাজার টাকা সঞ্চায় জমা করিলে ৭ দিনের মধ্যে ১ থেকে ৫ বছর মেয়াদী ১ লক্ষ টাকা ঋণ প্রদান করার প্রলোভন দেখিয়ে হাতিয়ে নিয়েছে লক্ষ লক্ষ টাকা।

এ ব্যাপারে ৫নং কালীপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট আ.ন.ম শাহাদত আলম বলেন, নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ঋণের টাকা না পাওয়ায় ২ দিন আগে পালেগ্রামের কয়েক জন এই ভুয়া এনজিও’র নামে আমাকে মৌখিক অভিযোগ করেন, পরে আমি বিভিন্নভাবে এই ভুয়া এনজিও’র খোঁজ খবর নিয়ে তাদের প্রতি আমার সন্দেহ হয়েছে, সোমবার সকালে স্থানীয় মেম্বার সহ স্থানীয় লোকজনের সহযোগীতায় তাদের আটক করি। পরে তাদের উপজেলা নির্বাহী অফিসাররে কাছে নিয়ে যায়। প্রতারকদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আরো কয়েক জন প্রতারকের নাম উঠে আসে, নির্বাহী অফিসারের নির্দেশে এনজিও প্রতারণা সিন্ডিকেটের ৯ জনের নাম উল্লেখ্য করে বাঁশখালী থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। আটককৃত ৩জনকে থানা পুলিশের হেফাজতে রাখা হয়েছে। পবের্তীতে তাদের কোটে চালান করা হবে।

Facebook Pagelike Widget