» বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্রের জন্ম হতো না :এ্যাড উম্মে কুলসুম স্মৃতি

প্রকাশিত: ১৭. মার্চ. ২০২০ | মঙ্গলবার

 

সিরাজুল ইসলাম রতন, গাইবান্ধা।। বাংলাদেশ কৃষকলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সাধারন সম্পাদক, গাইবান্ধা ০৩ পলাশবাড়ী সাদুল্লা পুর আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী এ্যাড উম্মে কুলসুম স্মৃতি বলেছেন হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের জম্ন না হলে বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্রের জম্ন হতো না।বাঙ্গালী জাতীর অবিসংবাদিত নেতা জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান চেয়েছিলেন ক্ষুধা দারিদ্র মুক্ত সুখী সমৃদ্ধ স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে।কিন্তু ঘাতকরা তাকে স্ব-পরিবারে নির্মম ভাবে হত্যা করেছিল।বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে খুনিরা চেয়েছিল বাংলাদেশ থেকে বঙ্গবন্ধুর নাম মুছে ফেলে দিতে কিন্তু বাংলার মানুষ তা কখনো মেনে নেয় নি।বঙ্গবন্ধু বেচে আছে কোটি মানুষের হ্রদয়ে। যতদিন রবে পদ্মা মেঘনা যমুনা বহমান ততোদিন রবে কীর্তি তোমার শেখ মুজিবুর রহমান।
মঙ্গলবার দিন ব্যাপী পলাশবাড়ী সাদুল্লাাপুর উপজেলার বিভিন্ন স্থানে নির্বাচনী জনসভা ও বঙ্গবন্ধুর জম্নশত বার্ষিকির আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।তিনি আরো বলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মানে কাজ করছে তারই কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা।খুনিরা তাকে ও একাধিক বার হত্যা করতে চেয়েছিল কিন্তু পারেনি। রাখে আল্লাহ মারে কে!মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ।শুধু বাংলাদেশ নয় সারা বিশ্ব ব্যাপি আজ বঙ্গবন্ধুর জম্নশত বার্ষিকি উদযাপিত হচ্ছে।এসময় পলাশবাড়ী সাদুল্লাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসহযোগী সংগঠনের বিপুল সংখ্যাক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।
পলাশবাড়ীতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী পালিত
সিরাজুল ইসলাম রতন গাইবান্ধা থেকেঃ–জয়বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু, “তুমি জন্মেছিলে বলেই জন্মেছিল এই দেশ,মুজিব তোমার আরেক নাম স্বাধীন বাংলাদেশ” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে রাষ্ট্র ও সমাজের দুরদর্শী রুপকার জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শততম জন্মবার্ষিকী নানা আয়োজনে পালিত হয়েছে।
১৭ মার্চ মঙ্গলবার সকাল ৮ঘটিকায় স্থানীয় শহীদ মিনার চত্বরে ৩১ বার তোপরধ্বনীর মাধ্যমে জন্মশতবর্ষ পালনের শুভ সুচনা করা হয় এবং মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্প্যমাল্য অর্পন শেষে উপজেলা চত্বরে ১শত পাউন্ডের বিশাল এক কেক কেটে জন্মশতবর্ষ পালন করা হয়।এসময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও পৌর প্রশাসক আবু বকর প্রধান, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব একেএম মোকছেদ চৌধুরী বিদ্যুৎ, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুর রহমান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মেজবাউল হোসেন, উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভুমি) মেরিনা আফরোজ, থানা অফিসার ইনচার্জ মাসুদুর রহমান, উপজেলা আওয়ামীলীগ সহ-সভাপতি শহিদুল ইসলাম বাদশা,সাধারন সম্পাদক উপাধ্যক্ষ শামিকুল ইসলাম লিপন সরকার, বিশিষ্ট প্রবীণ সাংবাদিক নুরুজ্জামানসহ আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।