এই মাত্র পাওয়া:

» প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা এলাকাবাসীর: গাইবান্ধার ব্রীজরোড কালিবাড়ী পাড়ায় আবারো শুরু হয়েছে ফেন্সিডিলের ব্যবসা ও নেশার আড্ডাখানা

প্রকাশিত: ০৮. মে. ২০২০ | শুক্রবার

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

 

গাইবান্ধা প্রতিনিধি: গাইবান্ধা শহরের ব্রীজরোড কালিবাড়ী পাড়ায় আবারো শুরু হয়েছে মাদক (ফেন্সিডিল) ব্যবসা ও নেশার আড্ডাখানা। নদীর পাড়ে পড়ে থাকতে দেখা গেছে ফেন্সিডিলের খালি বোতল। এতে করে অতিষ্ট হয়ে পড়েছে সচেতন এলাকাবাসী। প্রকাশ, মাঝাখানে প্রায় দু-এক বছর গাইবান্ধা শহরের ব্রীজরোড কালিবাড়ী পাড়ায় মাদক ( ফেন্সিডিল) ব্যবসা থেমে থাকায় নেশার আড্ডাখানা প্রায় বিলুপ্ত ছিল। কিন্তু ৫ থেকে ছয় মাস হল আবারো শুরু হয়েছে মাদক ব্যবসা। সে সাথে পরিনত হয়েছে মাদক সেবনের আড্ডাখানা। বিশেষ করে পুরাতন ঘাঘট নদীর পাড় সংলগ্ন সাংবাদিক সঞ্জয় এর বাসার নিজ শয়ন ঘরের দরজার কাছে ও ঘরের কোনে দাঁড়িয়ে ফেন্সিডিল, স্প্রিট সেবন করছে এলাকার ও এলাকার বাহিরের কিছু উঠতি বয়সের যুবকরা। সাংবাদিক সঞ্জয় এর বাসার ঘড়ের স্থানটি নদীর পাড় হওয়ায় একটু নির্জন স্থান হয়ে দাড়িয়েছে। অন্যদিকে মানুষ যখন দুপুরে খেয়ে একটু বিশ্রামের জন্য ঘুমায় ঠিক তখনি তারা এই স্থানটি বেছে নেয় মাদক সেবনের স্থান হিসেবে। আর মাদক ( ফেন্সিডিল) সেবন করার পর তার খালি বোতল পড়ে থাকতে দেখা গেছে পরিত্যক্ত নদীর পাড়ে। প্রতিদিন সকাল, বিকেল এবং সন্ধ্যা হলেই সাংবাদিক সঞ্জয়ের বাসার ঘড়ের কানি, সদর উপজেলা মডেল স্কুলের শিক্ষক অশোক সাহার নতুন বাড়ির পিছনে, ব্রীজরোড কালিবাড়ী পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আনাচে কানাচে চলে মাদক সেবিদের আড্ডা।

স্থানীয় সচেতন ব্যাক্তিরা জানান,, শুধু সাংবাদিক সঞ্জয় এর বাসার কানিতে নয়, ব্রীজরোড কালিবাড়ী পাড়ার প্রাইমারী স্কুল সহ বিভিন্ন নির্জন স্থানে প্রতিদিন বখাটে ও কিছু উশৃঙ্খল কিছু ছেলে মাদক সেবীরা আড্ডা জমায়।
শুধু তাই নয়, পাড়ার ছেলে তো আছেই। প্রতিদিন পাড়ায় বহিরাগত কিছু যুবক ছেলে মোটর সাইকেল যোগে এসে হুট করে থামিয়ে মাদক সেবীদের কাছে মাদক বিক্রি করে ও সেবন করে দ্রুত চলে যায়।

ইতিপূর্বে শহরের এই ব্রীজরোড কালিবাড়ী পাড়ায় মাদক বিক্রি হওয়ায় এলাকার বিভিন্ন বাসাবাড়িতে চুরির ঘটনাও ঘটেছে। এর আগে এলাকা হতে বেশ কয়েকজন মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেফতার করার পরে এলাকায় কিছুটা শান্তি ফিরে এসেছিল। বর্তমানে আবারো বেপরোয়া হয়ে উঠেছে মাদক সেবী ও ব্যবসায়ীরা। মাদকের টাকা জোগাড় করতে এলাকায় চুরি আতংক বিরাজ করছে। প্রায়ই ঘটছে চুরির ঘটনা। এই এলাকা মাদক মুক্ত রাখতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সহ পুলিশের উর্দ্ধর্তন কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করেছেন সচেতন এলাকাবাসী।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১৪৭ বার

[hupso]
Facebook Pagelike Widget