» আতিক বাবুকে বহিস্কার ও বিচার দাবী: গাইবান্ধায় দূর্নীতি ও প্রতারণার মাধ্যমে টাকা নেয়ায় সংবাদ সম্মেলন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের

প্রকাশিত: ০১. মে. ২০২০ | শুক্রবার

সঞ্জয় সাহা, গাইবান্ধা প্রতিনিধি: মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের সুন্দরগঞ্জ উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদকের নিকট থেকে শালার চাকুরী পাইয়ে দেয়ার কথা বলে টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উত্থাপন করে সংবাদ সম্মেলনে জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের সাধারণ সম্পাদক ও বাংলাভিশন এর প্রতিনিধি আতিক বাবুর অপসারণ এবং বিচার দাবী করলেন ভুক্তভোগীরা।
১ মে শুক্রবার দুপুরে জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত ঐ সংবাদ সম্মেলনে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডার এর সাংগঠনিক সম্পাদক হারুনুর রশিদ সরকার বলেন, তার শ্যালক শাহজাহান মিয়াকে প্রাণীসম্পদ মন্ত্রনালয়ের বিজ এর টেকনিশিয়ান পদে চাকুরী পাইয়ে দেয়ার কথা বলে ২০১৮ সালে ১ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা নেয় আতিক বাবু। পরে চাকুরী না হওয়ায় টাকা ফেরত চাইলে বিভিন্ন তালবাহানাসহ হুমকি ধামকী ও ভয়ভীতি প্রদান করে। শুধু তাই নয় ঐ প্রতারক আতিক বাবু তার শ্যালকের শিক্ষাজীবনের মূল সনদপত্রসহ চাকরীর ডকুমেন্টারি কাগজপত্রের পুরো ফাইলটি গায়েব করে দেয়। সংবাদ সম্মেলনে ঐ ভুক্তভোগী যুবক শাহজাহান মিয়া আতিক বাবুর প্রতারণার বিচার চেয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন এবং কান্নাজড়িত কন্ঠে কেন্দ্রীয় মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদ কমান্ডের নেতৃবৃন্দের নিকট এই প্রতারকের বহিস্কারসহ তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ারও জোর দাবী জানান।
ঐ সংবাদ সম্মেলনে আরেক প্রতারিত হওয়া ব্যক্তি পলাশবাড়ীর পবনাপুর ইউনিয়নের মুক্তিযোদ্ধা সামচুল ইসলামের ছেলে শরিফুল ইসলাম পলাশও অভিযোগ করে বলেন, ২০১৪ সালে স্বাস্থ্য সহকারী পদে চাকুরী পাইয়ে দেয়ার কথা বলে তার কাছ থেকে ২ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক আতিক বাবু। অনেকবার ঘুরে বহু কষ্টে কিছু টাকা উদ্ধার করতে পারলেও এখনও ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা ফেরত পায়নি শরিফুল ইসলাম পলাশ। তিনিও এই সংবাদ সম্মেলনে প্রতারক এবং চিটার আতিক বাবুর বহিস্কার দাবী করে টাকা ফেরত পাওয়ার জন্য প্রয়োজনে আইনের আশ্রয় নিবেন বলে জানান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন- গাইবান্ধা জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের দপ্তর সম্পাদক মো: মিজানুর রহমান।